প্রাচীন সভ্যতা – Ancient Civilization

Ancient Civilization

মেসোপটেমিয়া সভ্যতা (The Mesopotamian Civilization)

বিশ্বের প্রাচীনতম সভ্যতা মেসােপটেমিয়া। আনুমানিক খ্রিস্টপূর্ব ৫০০০ অব্দে ইরাকে জাহাঙ্গালা ও ইউফ্রেটিস নদীর উর্বর তীরাঞ্চলে মেসােপটেমীয় সভ্যতার বিকাশ ঘটে। এদের ভিন্ন ভিন্ন নাম। কলেও একই ভূ-খণ্ডে গড়ে উঠায় একত্রিতভাবে এ সভ্যতাসমূহকে বলা হয় মেসােপটেমীয় সভ্যতা। ‘মেসােপটেমিয়া একটি গ্রিক শব্দ। এর অর্থ দুই নদীর মধ্যবর্তী ভূমি। আধুনিক তুরস্ক, সিরিয়া, ইরান, ইরাক ও কুয়েত রাষ্ট্রগুলাে প্রচীন এই সভ্যতার অংশ ছিল। তবে বেশির ভাগ বর্তমানে ইরাকে অবস্থিত। মেসােপটেমিয়া সভ্যতার অন্তর্ভুক্ত রয়েছে সুমেরীয় সভ্যতা, ব্যাবিলনীয় সভ্যতা, অ্যাসেরীয় সভ্যতা ও ক্যালডেরীয় সভ্যতা।

The Sumerian Civilization (সুমেরীয় সভ্যতা)

মেসােপটেমিয়ার সবচেয়ে প্রাচীন সভ্যতা গড়ে তুলেছিল সুমেরীয়গণ। সুমেরীয়দের আদিবাস ছিল এলামের পাহাড়ি অঞ্চলে। খ্রিস্টপূর্ব ৪০০০ অব্দে এদের একটি শাখা মেসােপটেমিয়ার দক্ষিণে বসতি গড়ে তােলে। সুমেরীয়দের আয়ের মূল উৎস ছিল কৃষি। তারা উন্নত সেচব্যবস্থা গড়ে তুলেছিল। সুমেরীয়গণ ‘কিউনিফর্ম’ (Cuneiform) নামে একটি নতুন লিপির উদ্ভাবন করে কিউনিফর্মকে বলা হয় অক্ষরভিত্তিক বর্ণলিপি (Lette Based alphabet)। সুমেরীয়দের বর্ণমালার কোন কোনটি দেখতে ইংরেজি বর্ণমালার V এর মত। জ্বলাম্বাড়ি ও চন্দ্ৰপঞ্জিকার আবিষ্কার সুমেরীয়দের গুরুত্বপূর্ণ অবদান। সভ্যতায় সুমেরীয়দের সবচেয়ে বড় অবদান ‘চাকা’ (Wheel) আবিষ্কার।

The Babylonian Civilization (ব্যাবিলনীয় সভ্য)

সিরিয়ার মরুভূমি অঞ্চলের অ্যামােৱাইট জাতি আনুমানিক ২৫০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে মেসােপটেমিয়া অঞ্চলে একটি নগর সভ্যতা গড়ে তােলে। ব্যাবিলনীয়ু সভ্যতার স্থপতি ছিলেন বিখ্যাত আমােরাইট নেতা হাম্মুরাবি। পৃথিবীতে প্রথম লিখিত আইনের প্রচলন হয় ব্যাবিলনে। প্রথম লিখিত আইন প্রণেতা ছিলেন ব্যাবিলনীয়! সভ্যতার স্থপতি হাম্মুরাবি। এই সভ্যতায় আইন সংক্রান্ত ‘হাম্বুরাঝি ক্ষোভ প্রণীত হয়েছিল। সুমেরীয়দের অনুকরণে ব্যাবিলনীয়রা সাহিত্য রচনা কৰে। কিউনিফর্ম লিপিতে লেখা হয় বিখ্যাত মহাকাব্য গিলগামেশ (Gilgamesh) পৃথিবীর প্রাচীনতম মানচিত্র পাওয়া যায় ব্যাবিলনের উত্তরের গাথুর শহরের ধ্বংসাবশেষে। অমণকারীদের পথ নির্দেশ করার জন্য সহজ ও সরল প্রকারের মানচিত্র।

The Assyrian Civilization (অ্যাসেরীয় সভ্যতা)

ব্যাবিলন থেকে প্রায় দুইশত মাইল উত্তরে টাইগ্রিস নদীর তীরে ‘আশুর” নামে একটি সমৃদ্ধ শহর গড়ে উঠে। আসিরীয় ম্রাট নিজেকে মনে করতেন সূর্যদেবতা শামসেরু প্রতিনিধি। ইতিহাসে আসিরিয়ার পরিচয় সামরিক রাষ্ট্র হিসাবে। তারাই প্রথমে লােহার অস্ত্রে সজ্জিত বাহিনী গঠন করে এবং যুক্বরথের ব্যবহার করে। আসিরীয়রা প্রথম বৃত্তকে ৩৬০° তে ভাগ করে। পৃথিবীকে সর্বপ্রথম তারা অক্ষাংশ Latitudes) ও দ্রাঘিমাংশে (Longitudes) ভাগ করেছিল।

The Chaldean Civilization (ক্যালডীয় সভ্যতা)

ব্যাবিলন শহরকে কেন্দ্র করে গড়ে উঠায় ক্যালডীয় সভ্যতা ইতিহাসে নতুন ব্যাবিলনীয় সভ্যতা নামেও পরিচিত। ক্যালডীয় সভ্যতার স্থপতি ছিলেন সম্রাট নেবুচাদনেজার। ব্যাবিলনের শূন্যউদ্যান’ (The Hanging Garden of Babylon) নির্মাণের জন্য তিনি অমর হয়ে আছেন। সম্রাট নেবুচাদ নেজারের ম্রাজ্ঞী বাগান করতে খুব পছন্দ করতেন। তাঁরই উৎসাহে সম্রাট নগর দেওয়ালের উপর তৈরি করলেন আশ্চর্য সুন্দর এক বাগান। ইতিহাসে যা ‘শূন্যউদ্যান’ নামে পরিচিত। ব্যাবিলনের শূন্যউদ্যান’ (The Hanging Garden of Babylon) প্রাচীন পৃথিবীর সপ্তাশ্চর্যের একটি। ক্যালডেরীয়রাই প্রথম সপ্তাহকে ৭ দিনে বিভক্ত করে। আবার প্রতিদিনকে ১২ জোড়া ঘণ্টায়। ভাগ করার পদ্ধতি তারা বের করে। ক্যালডেরীয়রা ১২ টি নক্ষত্রপুঞ্জের সন্ধান পান। তা থেকে ১২ টি। রাশিচক্রের (12 Zodiac Circles) সৃষ্টি হয়।

প্রাচীন মিশরীয় সভ্যতা (Ancient Civilization of Egypt))

মিশরে নগর সভ্যতা গড়ে উঠেছিল খ্রিস্টপূর্ব ৫০০০ অব্দে। নীল নদকে কেন্দ্র করে মিশরের এ সভ্যতা গড়ে উঠেছিল বলে গ্রিক ইতিহাসবিদ হেরােডােটাস মিশরকে বলেছেন ‘নীল নদের দান’ (Gift of the Nile)। ৫০০০-৩২০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দ পর্যন্ত সময়ের মিশরকে প্রাক-রাজবংশীয় যুগ বলা হয়। এ সময় মিশর কতগুলাে ছােট ছােট নগর রাষ্ট্রে বিভক্ত ছিল। এগুলােকে বলা হত নােম। ৩২০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে ‘মেনেস নামের এক রাজা সমগ্র মিশরকে একত্রিত করে একটি নগর রাষ্ট্র গড়ে তােলেন। দক্ষিণ মিশরের ‘মেসি’ হয় এর রাজধানী। এভাবে মিশরে রাজবংশের সূচনা হয়।

ধর্মঃ ফারাও চতুর্থ আমেনহােটেপ বহুদেবতার পরিবর্তে একমাত্র সূর্যদেবতার আরাধনার কথা প্রচার করেন। সূর্যদেবতার নাম দেওয়া হয় ‘এটন। দেবতার নামের সাথে মিল রেখে তিনি নিজের নাম রাখেন। ‘ইখনাটন। এভাবে ইখনাটন সভ্যতার ইতিহাসে সর্বপ্রথম ঈশ্বরের ধারণা দেন।

স্থাপত্য ও ভাস্কর্যঃ প্রাচীন মিশরের রাজাদের বলা হত ফারাও (Pharaoh)। মিশরীয়রা মৃত্যুর পর আরেকটি জীবনের অস্তিত্বের প্রতি বিশ্বাসী ছিল। সে জীবনেও রাজা হবেন ফারাও। ফারাও রাজাদের মৃতদেহ সংরক্ষণের জন্য তৈরি করা হয় পিরামিড। পৃথিবীর সবচেয়ে পুরাতন কীর্তিস্তম্ভ পিরামিড। মিশরের সবচেয়ে বড় পিরামিড হচ্ছে ফারাও খুফুর পিরামিড। খুফুর পিরামিড গড়ে উঠেছিল। তর একর জায়গা জুড়ে। এর উচ্চতা ছিল প্রায় সাড়ে চারশত ফুট। মিশরীয় ভাস্করদের চেয়ে বড় গৌরব স্ফিংস’ তৈরিতে। বহুখণ্ড পাথরের গায়ে ফুটিয়ে তােলা হতাে এ ভাস্কর্য। স্ফিংসের হ সিংহের। আকতির, আর মাথা ছিল ফারাওয়ের। ফারাওদের আভিজাত্য শক্তির প্রতীক ছিল এ মূর্তি। ফারাও রমেন খিস্টপূর্ব ১৩৩৩ – ১৩২৪ অব্দে মিশরে রাজত্ব করেন। ১৯২২ সালে হাওয়ার্ড কার্টার। ততেনখামেনে সমাধি আবিষ্কার করে বিশ্বব্যাপী আলােড়ন তােলেন।
লিখন পদ্ধতির উদ্ভাবনঃ মিশরীয়রা একটি লিখন পদ্ধতি উদ্ভাবন করে। প্রথম দিকে ছবি এঁকে এঁকে মিশরীয়রা মনের ভাব প্রকাশ করত। এক একটি ছবি ছিল এক একটি অক্ষরের প্রতীক। অক্ষরভিত্তিক মিশরীয় এ চিত্রলিপিকে বলা হয় ‘হায়ারােগ্লিফিক’ (Hieroglyphics)। গ্রিক শব্দ ‘হায়ারােগ্লিফিক’ অর্থ পবিত্রলিপি। প্যাপিরাস’ নামক এক ধরনের নল গাছের বাকল দিয়ে তারা সাদা রঙের কাগজও তৈরি করত।
বিজ্ঞানঃ মিশরীয়রা সর্বপ্রথম ১২ মাসে ১ বছর, ৩০ দিনে ১ মাস এই গণনারীতি চালু করেন। যেহেতু ফারাও মৃত্যুর পর পরকালে রাজা হবেন সেহেতু তাঁর মৃতদেহকে পচন থেকে রক্ষার জন্য মিশরীয় বিজ্ঞানীরা মমি তৈরি করতে শেখেন।

সিন্ধু সভ্যতা (The Indus Civilization)

মিশর ও মেসােপটেমিয়ায় যখন গড়ে উঠেছিল নগর সভ্যতা, প্রায় কাছাকাছি সময়ে ভারতবর্ষেও গড়ে উঠেছিল নগর সভ্যতা। এটি ব্রোঞ্জযুগের সভ্যতা। এখানে লােহার কোনাে জিনিস পাওয়া যায়নি। প্রায় ৩৫০০ বছর পূর্বে দ্রাবিড় জাতি এ সভ্যতা গড়ে তুলেছিল বলে মনে করা হয়। এ প্রাচীন সভ্যতা আবিষ্কৃত হয় ১৯২১ সালে। সভ্যতাটি সিন্ধু নদীর তীরে গড়ে উঠেছিল বলে এটি ‘সিন্ধু সভ্যতা’ নামে পরিচিত । দ্রাবিড় জাতি এ সভ্যতা গড়ে তুলেছিল বলে মনে করা হয়। হরপ্পা নগরীটি গড়ে উঠেছিল সিন্ধুর উপনদী রাভীর তীরে। এটি অবস্থিত বর্তমান পাকিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশে। আর মূল সিন্ধুনদের তীরে এক বর্গমাইল এলাকা জুড়ে গড়ে উঠেছিল। মহেঞ্জোদারাে নগরী।

১৯২২ সালে পাকিস্তানের লারকানা জেলায় মাটি খুঁড়ে আবিষ্কার করা হয় মহেঞ্জোদারাে নগরীর ধংসাবশেষ। সিন্ধু সভ্যতার আবিষ্কারক জন মার্শাল, দয়ারাম সাহনী ও রাখালদাস বন্দ্যোপাধ্যায়। সঙ্গ সভ্যতায় পাওয়া সীল ও মাটির পাত্রের সাথে মেসােপটেমিয়ার দ্রব্যের মিল আছে। তাই বিখ্যাত প্রত্নতত্ত্ববিদ স্যার জন মার্শাল মনে করেন যে, সিন্ধু সভ্যতা গৌরবের শিখরে উঠেছিল খ্রিস্টপূর্ব ৩২৫০ থেকে ২৭৫০ অব্দের মধ্যে।

নগর পরিকল্পনাঃ সভ্যতার ইতিহাসে সিন্ধু সভ্যতা পরিকল্পিত একটি নগরীর ধারণা দিয়েছে। উভয় শহরে রাস্তার দুপাশে দোতলা তিনতলা বাড়ি ছিল। প্রতি বাড়িতে ছিল চৌবাচ্চাসহ গােসলখানা, কুপ। দুইটি শহরেই পাকা নর্দমা ছিল।
পেশাঃ সিন্ধু সভ্যতার বেশিরভাগ লােক কৃষিকাজ করত।

পরিমাপ পদ্ধতিঃ সিন্ধু সভ্যতার একটি গুরুত্বপূর্ণ অবদান হল পরিমাপ পদ্ধতি উদ্ভাবন করা। দ্রব্য ওজনের জন্য নগরবাসী বিভিন্ন পরিমাপের বাটখারা ব্যবহার করত। দৈর্ঘ্য পরিমাপের জন্য তারা বিভিন্ন স্কেল ব্যবহার করত।

সীলমােহরঃ মহেঞ্জোদারাে ও হরপ্পায় হাড় ও পাথরের তৈরি সীলমােহর পাওয়া গেছে। সিন্ধু সভ্যতা ধ্বংসের কারণ সিন্ধু সভ্যতার পতন শুরু হয় আনুমানিক ২৭৫০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে। কিভাবে সিন্ধু সভ্যতার ধ্বংস হয় সে বিষয়ে পণ্ডিতগণ সঠিক কোন সিদ্ধান্তে আসতে পারেননি। হয়তাে বাহিরের কোন শত্রুর আক্রমণ অথবা প্রচন্ড কোন ভূমিকম্প বা ভয়াবহ কোন বন্যার ফলে এ সভ্যতা ধ্বংস হয়ে যায়।

ফিনিশীয় সভ্যতা (The Phoenician Civilization)

লেবায়ন পর্বত এবং ভূমধ্যসাগরের মাঝামাঝি এক ফালি সরু ভূমিতে ফিনিশীয় রাষ্ট্র গড়ে উঠেছিল। কৃদ্ধিকাজ করার মত এখানে উর্বর জমি ছিলনা। তাদের আয়ের একমাত্র উৎস ছিল বাণিজ্য।

ফিনিশীদের অবদান প্রাচীন সভ্যতার ইতিহাসে ফিনিশীয়দের পরিচয় শ্রেষ্ঠতম নাবিক ও জাহাজ নির্মাতা হিসাৰে। ধ্রুবতারা (North Star) দেখে তারা দিক নির্ণয় করত। এ কারণে ধ্রুবতারা অনেকের কাছে ফিনিশীয় তারা’ (Phonecian Star) নামে পরিচিত ছিল।
সাহিস্কৃতিক উন্নতি সভ্যতার ইতিহাসে ফিনিশীয়দের সবচেয়ে বড় অবদান হল জ্বর্ণমালা (Alphabet) এর উদ্ভাবন। তারা ২২ টি ব্যঞ্জনবর্ণের (Coinsonants) উদ্ভাবন করে। আধুনিক বর্ণমালার সূচনা ই এখান থেকে। ফিনিশীয়দের উদ্ভাবিত বর্ণমালার সাথে পরবর্তীতে গ্রিকরা স্বরবর্ণ (Vowels) যােগ করে বর্ণমালাকে সম্পূর্ণ করে।
কারিগরি দক্ষতা ফিনিশীয়াৱা মাটির পাত্র তৈরি করতে পারত। দক্ষতার সাথে কাপড় তৈরি ও রং করতে পারত।

প্রথম কারা বর্ণমালা অভাবন করে? ল ফিনিশীয়রা।
পারস্য সভ্যতা (The Persian Civilization)
ক্ষকের ইরান প্রাচীনকালে পারস্য নামে পরিচিত ছিল। খ্রিস্টপূর্ব ২০০০ অব্দ থেকে ৬০০ অব্দের মধ্য এখানে আর্যরা এক উন্নত সভ্যতা গড়ে তােলে। এ সভ্যতার অধিবাসীরা সামরিক শক্তিতে খ্যাতিমান চিল। সভ্যতার ইতিহাসে দুইটি ক্ষেত্রে পারসীয়দের অবদান ছিল গুরুত্বপূর্ণ। প্রথমটি সুষ্ঠ ও দক্ষ প্রশাসন ব্যবস্থা গড়ে তােলা এবং দ্বিতীয়টি ধর্মীয় ক্ষেত্রে নতুন ধারণা নিয়ে আসা। জরথুষ্ট্র নামে পারস্যে এক ধর্মগুরু ও দার্শনিকের আবির্ভাব ঘটে। জরথুষ্ট্র কর্তৃক প্রবর্তিত ধর্ম ‘জরথুস্ট্রবাদ’ নামে পরিচিত। পারস্যের ইতিহাসে কাইরাস ও দারিয়ুস ছিলেন সবচেয়ে সফল শাসক। ৩০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে গ্রিক বীর আলেকজান্ডার অধিকার করে নেন সমগ্র পারস্য সাম্রাজ্যকে।
পারসিক ধর্মের প্রবর্তক কে?
(৪) জরথুস্ট্র
Posto soot (The Hebrew Civilization)) প্যালেস্টাইনের জেরুজালেম নগরীকে কেন্দ্র করে গড়ে হিব্রু সভ্যতার বিকাশ ঘটেছিল। হিব্রু কোন জাতির নাম নয়। হিব্রু একটি সেমাটিক ভাষা। এ ভাষায় কথা বলা লােকেরাই হিব্রু নামে পরিচিত। হিব্রুদের আদিবাস ছিল আরব মরুভূমিতে। বর্তমান ইসরাইলের অধিবাসীরা হিব্রুদের বংশধর । হিব্রুরা তাদের অবদানের পুরােটাই রেখেছে ধর্মীয় ক্ষেত্রে। হিব্রুরা সর্বপ্রথম একেশ্বরবাদের কথা ব্যাপকভাবে প্রচার করে। অবশ্য অনেককাল পূর্বে মিশরের ফারাও ইখনাটন এক দেবতার আরাধনার আহবান জানিয়েছিলেন। কিন্তু তা তেমন জনপ্রিয় হতে পারেনি। হিব্রুদের নবী হযরত মুসা (আ.), হযরত দাউদ (আ.) এবং হযরত সুলায়মান (আ.) মানুষের প্রচলিত ধর্মীয় চেতনায় নতুন আলােড়ন তােলেন।
> SSSSS | ১. প্যালেস্টাইনে কোন সভ্যতা গড়ে উঠেছিল?
T
T
| ২.
@হিক সভ্যতা বর্তমান ইসরাইলের অধিবাসীরা কাদের বংশধর?
হিব্রুদের

( প্রাচীন চৈনিক সভ্যতা (The Ancient Chiness Civilization) তিনটি অঞ্চলে প্রাচীন চৈনিক সভ্যতা বেড়ে উঠতে থাকে। প্রথমটি হােয়াংহাে (পীত নদী) নদীর তীরে, দ্বিতীয়টি ইয়াংজেকিয়াং নদীর তীরে আর তৃতীয়টি দক্ষিণ চীনে গড়ে উঠেছিল। দর্শন। চীনের প্রাচীনতম দার্শনিক ছিলেন লাওৎসে। তাঁর মতবাদের নাম ছিল তাওবাদ। চীনের ইতিহাসে সবচেয়ে প্রভাবশালী দার্শনিক ছিলেন। কনফুসিয়াস (৫৫১-৪৭৯ খ্রি.পূ.)। কনফুসিয়াসের প্রধান অনুসারী ছিলেন মেনসিয়াস।
< চীনের প্রথম সভ্যতা গড়ে উঠেছিল – ক ইয়াংসি নদীর অববাহিকায় &ে হােয়াংহাে নদীর মােড়ে @ ইয়ালু নদের মােড়ে | ঘ) পীত সাগরের তীরে কোন নদীর তীরে চীনের প্রথম সভ্যতা গড়ে উঠেছিল? ক হান।
ঐে পীত @ ইয়াংসী
স্যালুউইন। কনফুসিয়াস নামটি কোন দেশের সাথে সম্পর্কযুক্ত? ক) জাপান।
\ চীন। গু থাইল্যান্ড
| ঘ) কোরিয়া। কনফুসিয়াস কে ছিলেন? জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (ঘ ইউনিট) : কে চীনা দার্শনিক
ভিয়েতনামের নেতা @ চীনের সম্রাট
ঘ) মঙ্গোলীয় নেতা।
১.
৪.
=
=
=
=
=
ইজিয়ান সভ্যতা (The Aegean Civilization) গ্রিস ও এশিয়া মাইনরকে পৃথক করেছে ইজিয়ান সাগর। এই ইজিয়ান সাগর জুড়ে ছিল ছােট বড় অনেক দ্বীপ। ইজিয়ান সাগরের দ্বীপমালা ও এশিয়া মাইনরের উপকূলে একটি উন্নত নগর সভ্যতা গড়ে উঠে। ইতিহাসে এ সভ্যতা ইজিয়ান সভ্যতা নামে পরিচিত। গ্রিসে সভ্যতা গড়ে তােলার প্রস্তুতিপর্ব ছিল। এ সভ্যতা। ১২০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে ইজিয়ান সভ্যতার পতন ঘটে।
গ্রিক সভ্যতা (The Greek Civilization) ‘গ্রিক’ ও ‘গ্রিস’ শব্দ দুটি যথাক্রমে জাতি ও দেশ। গ্রিক সভ্যতায় অনেকগুলাে ছােট ছােট নগর রাষ্ট্র গড়ে উঠেছিল। গ্রিসকে গণতন্ত্রের সূতিকাগার বলা হয়। গ্রিসের ভৌগােলিক পরিবেশ ছিল একটু ভিন্ন ধরনের। এ অঞ্চলে অনেকগুলাে পাহাড় দাঁড়িয়ে ছিল দেয়ালের মত। ফলে ক্ষুদ্র ক্ষুদ্র বেশ কয়েকটি অঞ্চলে ভাগ হয়ে যায় দেশটি। এ ছছাট দেশগুলাের নাম হয় নগর রাষ্ট্র।

প্রাচীন সভ্যতা
এদের মধ্যে নেতৃস্থানীয় ছিল স্পার্টা ও এথেন্স। স্পার্টা ছিল একটি সামরিক নগর রাষ্ট্র। রাষ্ট্রনেতারা ছিল। স্বৈরাচারী। পক্ষান্তরে প্রতিবেশী এথেন্স ছিল গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র। রাষ্ট্র পরিচালনায় জনগণের অংশগ্রহণের অধিকার থাকলে সে ব্যবস্থাকে বলে গণতন্ত্র। প্রাচীন পৃথিবীতে এথেন্সই সর্বপ্রথম গণতন্ত্রের সূচনা হবে। রাষ্ট্র পরিচালনায় তখন দুইটি সংসদ ছিল। গােত্র প্রধানদের নিয়ে গড়া সংসদকে বলা হত। বিওপেগাস’ এবং সাধারণ নাগরিকদের সমিতিকে বলা হত একলেসিয়া’। এথেন্সে চূড়ান্তভাবে তেল প্রতিষ্ঠা করেন পেরিক্লিস। পেরিক্লিস এথেন্সের ক্ষমতায় আসেন ৪৬০ খ্রিস্টাব্দে। এশিয়া মাইনরে প্রথম লােহা আবিষ্কৃত হয়।
পেলােপনেসীয় যুদ্ধ।
স্পার্টা ও এথেন্স উভয় দেশ একে অন্যের শত্রু ছিল। এথেন্স তার বন্ধু রাষ্ট্রগুলােকে নিয়ে একটি জোট গঠন করে। এর নাম হয় ‘ডেলিয়ান লীগ। অন্যদিকে স্পার্টা তাঁর বন্ধু রাষ্ট্রগুলােকে নিয়ে গঠন করে আরেকটি জোট। এ জোটের নাম হয় ‘পেলােপনেসীয় লীগ। এক সময় এই দুই জোটের মধ্য যুদ্ধ বেধে যায়। ইতিহাসে এ যুদ্ধ ‘পেলােপনেসীয় যুদ্ধ’ নামে পরিচিত। ৪৬০ থেকে ৪০৪ খ্রিস্টপূর্বাব্দ পর্যন্ত মােট তিনবার যুদ্ধ হয়। এ যুদ্ধে চূড়ান্ত পতন ঘটে এথেন্সের।।
ভৌগােলিক অবস্থান প্রাচীন গ্রিক সভ্যতা গড়ে উঠেছিল ভূমধ্যসাগরকে কেন্দ্র করে। ভৌগােলিক ও সাংস্কৃতিক কারণে গ্রিক সভ্যতার সাথে দুইটি সংস্কৃতির নাম জড়িয়ে আছে। একটি ‘হেলেনিক’ (Hellenic) এবং অন্যটি ‘হেলেনিস্টিক’ (Hellenistic)। গ্রিসকে হেলেনীয় সভ্যতার দেশ বলা হয়। গ্রিসের প্রধান শহর এথেন্সে শুরু থেকেই যে সংস্কৃতি গড়ে উঠেছিল, তাকে বলা হয় হেলেনিক সংস্কৃতি। গ্রিস উপদ্বীপ ছিল এ সংস্কৃতির মূল কেন্দ্র। খ্রিস্টপূর্ব ৩৩৭ অব্দ পর্যন্ত হেলেনিক সভ্যতা টিকে ছিল। এ সময় মিশরের আলেকজান্দ্রিয়াকে কেন্দ্র করে গ্রিক সংস্কৃতি ও অগ্রিক সংস্কৃতির মিশ্রণে এক নতুন সংস্কৃতির জন্ম হয়। ইতিহাসে এ সংস্কৃতির পরিচয় হয় হেলেনিস্টিক সংস্কৃতি নামে।।
১.
‘গ্রিক’ ও ‘গ্রিস’ শব্দ দুটি যথাক্রমে – রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (ক ইউনিট) : ১৩-১৪] । ক) দেশ ও জাতি
& জাতি ও দেশ দুটি দেশ।
ঘ) জন্তু ও দেশ। Which country is known as birth place of democracy উন্নয়ন কর্পোরেশন সহকারী ব্যবস্থাপক : ১৩] Or, নিচের কোন দেশে গণতন্ত্রের জন্ম হয়েছিল? | হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকের অধীন জুনিয়র অডিটর : ১১/ খাদ্য অধি UK
Greece
© India © China
* None of these গণতন্ত্রের সুতিকাগার কোনটি? (রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (ফোকলাের) : ০৭-০৮] ক যুক্তরাজ্য
খ) ইতালি ফ্রান্স
& গ্রিস

The largest democratic country in the world is … Senior Officer:13] | Or, পৃথিবীর সর্ববৃহৎ গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র বলা হয় কোন দেশকে? শিল্প মন্ত্রণালয়ের অধীন বিসিআইসি’র সহকারী ব্যবস্থাপক (প্রশাসন) । ১১) @ United states
© United Kingdom India
@ None of the above প্রথম কোথায় লােহা আবিষ্কৃত হয়? (গণযােগাযােগ অধিদপ্তরের সহকারী তথ্য অফিসা ক) গ্রিসে
এশিয়া মাইনরে গ) ইতালিতে
ঘ মিশরে প্রাচীন গ্রিক সভ্যতা গড়ে উঠেছিল কোন সাগরকে কেন্দ্র করে? ক) ভূমধ্যসাগর
খ) কাস্পিয়ান গ) বাল্টিক সাগর।
ঘ) লােহিত সাগর ভৌগােলিক ও সাংস্কৃতিক কারণে গ্রিক সভ্যতার সাথে কোন দুটি সংস্কৃতির নাম জড়িত? চট্টগ্রাম। বিশ্ববিদ্যালয় (ঘ ইউনিট) : ০২-০৩)। ক হেলেনিক ও মিনায় ।
হেলেনিক ও হেলেনিস্টিক গ এচিয়ান ও হেলেনিস্টিক ঘ) মিনীয় ও এচিয়ান। হেলেনীয় সভ্যতার দেশ কোনটি? [রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (ক ইউনিট বিজোড়) : ১৩-১৪] । ক ইরাক।
) সিরিয়া @ গ্রিস
& মিসর
৭.
ধর্ম। গ্রিকরা বহুদেবতায় বিশ্বাসী ছিল। গ্রিকদের প্রধান দেবতা ছিলেন জিউস। দেবতা এপােলাে ও দেবী এথেনাও ছিলেন বিশেষ গুরুত্বপূর্ণ। গ্রিকবাসী বিশ্বাস করত দেবতাদের বাস উত্তর গ্রিসে অলিম্পাস পর্বতের চূড়ায় । গ্রিক দেবী বা দেবতার নাম
| পরিচিতি
। আফ্রোডায়িট (Aphrodite)। ভালবাসা, রােমাঞ্চ এবং সৌন্দর্যের দেবী। অ্যাপােলাে (Apollo)। সূর্য, আলাে, চিকিৎসাবিদ্যা এবং সঙ্গীতের দেবতা। এরিস (Ares) | যুদ্ধদেবতা
। আরটেমিস (Artemis) শিকার, বন, উর্বরতা এবং চাদের দেবী। acerat (Athena) প্রজ্ঞার দেবী। (জিউসের কন্যা)। ডিমিটার (Demeter) কৃষি বিষয়ক দেবী। হারমেস (Hermes)। ব্যবসা বিষয়ক দেবতা (রােমান নাম মারকারি) হেরা (Hera)
বিবাহ বন্ধন অটুট রাখার দেবী। (জিউসের স্ত্রী) জিউস (Zeus)
দেবতাদের রাজা

নিচের কাকে গ্রিকদের ‘ফার্টিলিটির দেবী’ বলা হয়? ক) সিরেস।
খে এরিস। গ) অ্যাজটেক
৪) আরটেমিস গ্রিক পুরাণে ‘ভালবাসার দেবতা কে ছিলেন? [জা ক) আফ্রোডাইট
খে এথেনা # হেরা
ঘ) ভেনার
দর্শন গ্রিকদের সবচেয়ে বড় অবদান ছিল দর্শন চর্চায়। প্রথম দিকের বিখ্যাত দার্শনিক ছিলেন থ্যালেস। থ্যালেস কল্পকাহিনীর বদলে প্রথম সূর্যগ্রহণের প্রাকৃতিক কারণ ব্যাখ্যা করেন। ধীরে ধীরে গ্রিসে এক ধরনের যুক্তিবাদী দার্শনিকের আবির্ভাব ঘটে। এদের বলা হতাে সফিস্ট।
সক্রেটিস সক্রেটিস ছিলেন গ্রিসের দার্শনিকদের মধ্যে সবচেয়ে খ্যাতিমান। অন্যায় শাসনের প্রতিবাদ করায় গ্রিসের শাসক গােষ্ঠী ৩৯৯ খ্রিস্টপূর্বাব্দে এ মহান দার্শনিককে হেমলক লতার তৈরি বিষ খাইয়ে হত্যা করে। তাঁকে ‘সব জ্ঞানীদের গুরু’ বলা হয়।
প্লেটো সক্রেটিসের ছাত্র দার্শনিক প্লেটো গ্রিক দর্শনকে চরম উন্নতির দিকে নিয়ে যান। তিনি গ্রিসে জন্মগ্রহণ করেন এবং গ্রিসের নাগরিক ছিলেন। তিনি তাঁর চিন্তাগুলাে ধরে রাখেন ‘দি রিপাবলিক’ নামক গ্রন্থ রচনা করে। প্লেটো ৩৮৫ খ্রিস্টপূর্বাব্দে দর্শনের স্কুল Akademia’ প্রতিষ্ঠা করেন। তিনি সক্রেটিসের শিক্ষার বক্তব্যগুলাে নিয়ে ‘ডায়ালগস অব সক্রেটিস’ নামে আরেকটি গ্রন্থ রচনা করেন।
এরিস্টটল প্লেটোর ছাত্র এরিস্টটলও একজন বড় দার্শনিক ছিলেন। তাঁর একটি বিখ্যাত গ্রন্থের নাম ‘দ্যা। পলিটিক্স’। তিনি ‘লাইসিয়াম’-এর প্রতিষ্ঠাতা। এরিস্টটল আলেকজান্ডারের শিক্ষক ছিলেন।

সফিস্ট সম্প্রদায়ের উদ্ভব হয়েছে কোন দেশে? (জাহাঙ্গ ক) ভারত
খ) ইংল্যান্ড @ গ্রিস।
(ঘ) মিশর। | ‘সব জ্ঞানীদের গুরু’ কাকে বলা হয়? (চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ক) প্লেটো
খ) রুশাে @ সক্রেটিস
ঘ) মন্টেস্কু। কে বয়ােজ্যেষ্ঠ? (জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (ডি ইউনিট) : ১৪-১৫] ক আলেকজান্ডার
থে সক্রেটিস @ প্লেটো।
(ঘ) এ্যারিস্টটল সক্রেটিসকে হেমলক পানে হত্যা করা হয়- শ্রম অধিদপ্তরে জনশক্তি ক) সেন্ট হেলেনায়
খে গ্রিসে গু রােমে
ঘ) ফ্রান্সে প্লেটো কোন দেশে জন্মগ্রহণ করেন? চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (ঘ ইউনিট) : ০২-০৩] ক) ইতালি
(খ) অস্ট্রিয়া গ্রিস
(ঘ) ফ্রান্স Plato was a citizen of -/ প্লেটো কোন দেশের নাগরিক? : 06/Mercantile Bank Ltd. Officer:06] @France
Greece © Germany @ USA
© None of these প্লেটোর শিক্ষক কে ছিলেন? বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (ই ইউনিট)। ক) এরিস্টটল।
ঋ সােলন। গ) আলেকজান্ডার
ঐ সক্রেটিস Academy was established by-/ ‘একাডেমি কে প্রতিষ্ঠা করেন? রায় (রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ) : ০৮-০৯] Socrates
Plato Aristotle
© Rousseau ‘দ্যা রিপাবলিক’ গ্রন্থের (বইটির) প্রণেতা (লেখক) কে? চট্টগ্রাম | শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় (খ ইউনিট) : ০৩-০৪] । # প্লেটো
খ এরিস্টটল ® হেরাক্লিটাস ১০. দার্শনিক প্লেটো রচিত বিখ্যাত পুস্তকের নাম- বাংলাদেশ ব্যাংক ব্যাংকার্স রিক্রটমেন্ট : ৮৮)
ঘ) সক্রেটিস ক দি প্রিন্স
খে দি পলিটিক্স © দি গড ফাদার
চােদি রিপাবলিক আলেকজান্ডারের শিক্ষক- ঢািকা বিশ্ববিদ্যালয় (খ ইউনিট) : ০৯-১০]। ক) সক্রেটিস @ প্লেটো
(খ হােমার
এরিস্টটল
১১.

লাইসিয়াম প্রতিষ্ঠা করেনরাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (ও ইউনিট বিজোড়) ; ১৩-১৪] ক) সক্রেটিস

ঋ প্লেটো @ এরিস্টোটল

| (ঘ) আলেকজান্ডার দ্যা গ্রেট। ‘দ্যা পলিটিক্স’ গ্রন্থের লেখক- বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয় (খ ইউনিট) : ১৪-১৫। কে এরিস্টটল।

খ) সক্রেটিস @ প্লেটো।

ঘ) ম্যাকিয়াভেলী গ্রিসের দার্শনিক নন- জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (খ ইউনিট) : ০৬-০৭/ ঢাকা বিশ্ববিদ্যাল ক অ্যারিস্টটল

ঋ প্লেটো। এ সক্রেটিস

ভলটেয়ার ব্যাখ্যা : ভলটেয়ার ছিলেন ফরাসি দার্শনিক। কোনতিনজন দার্শনিককে Wise men of the old বলাহয়? ক প্লেটো, এরিস্টটল ও ম্যাকিয়াভেলি খ) সক্রেটিস, প্লেটো ও অগাস্টিন @ হবস, লক ও রুশাে

সক্রেটিস, প্লেটো ও এরিস্টটল

১৫. কো

গ্রিক সাহিত্য

গ্রিক মহাকবি হােমার হাজার হাজার বছরের পুরােনাে কাহিনী নিয়ে রচনা করেন মহাকাব্য Iliad (ইলিয়াড) এবং Odyssey (ওডিসি)। গ্রিসের সবচেয়ে জনপ্রিয় নাট্যকার ছিলেন এস্কাইলাস”। তাঁর বিখ্যাত দুইটি নাটকের নাম ‘প্রমেথিউস বাউন্ড’

ও ‘আগামেমনন। নাট্যকার সফোক্লিস একশটিরও বেশি নাটক লেখেন। এর মধ্যে জনপ্রিয় দুইটি হচ্ছে ‘এন্টিগনে’ ও ‘ইলেক্ট্রী’। নাট্যকার সফোক্লিসের বিখ্যাত ট্রাজেডি ‘রাজা ঈদিপাস’। ইতিহাস রচনার ক্ষেত্রেও সমান কৃ তিত্ব ছিল গ্রিকদের। গ্রিক ইতিহাসবেত্তা হেরােডােটাসকে ইতিহাসের জনক বলা হয়। তিনি আনুমানিক ৪৮৪ খ্রিস্টপূর্বে বর্তমান তুরস্কের বােদরামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বিখ্যাত গ্রন্থ ‘The Histories’।

অন্য খ্যাতিমান ইতিহাসবিদ ছিলেনথুকুডাইডিস’। তাঁকে বিজ্ঞানসম্মত গ্রিক মহাকবি তোমার।

ইতিহাসের জনক বলা হয়।।

হােমার কোন ভাষার কবি? রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (ক ইউনিট বিজোড়) : ১৩-১৪] ক) ইংরেজি।

| ল্যাটিন @ স্প্যানিশ

স্টে গ্রিক The famous book (epic) ‘Odyssey’ is written by-/ fanno COPY এর রচয়িতা- [বেগম রােকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (খ ইউনিট) : ১২-১৩/ ICB Officer: 11/] BRDB Officer: 04/ Premier Bank Ltd. Senior Officer : 03] @ Shakespeare

Homer © Keats

@ Bayron /ad was written by whom?/ ইলিয়াড’ এর রচয়িতা কে? @ Milton

Tennyson © Shakespeare

Homer

সফোকিল কোন দেশের নাট্যকার? [জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (নৃবিজ্ঞান বিভা) । ক) ফ্রান্স
\& গ্রিস। গ) ইতালি
(ঘ) জার্মানি | ‘রাজা ঈদিপাস’ নাটকের রচিয়তা- (জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় (নাট কে সফোক্লিস
খ) শেক্সপিয়ার। গ) মলিয়ের
(ঘ) টমাস কীড়। হেরােডেটাস- এর জন্মভূমি- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (খ-ইউনিট) : ১৪-১৫] ক) ইতালি
(খ) গ্রিস। গ) স্পেন
(ঘ) মিশর । ব্যাখ্যা : হেরােভাটাস -এর জন্ম তৎকালীন এশিয়া মাইনরের কারিয়া অঞ্চলের হ্যালিকারনাল শহরে, যার বর্তমান নাম ‘বােদরাম। এটি বর্তমান তুরস্কে অবস্থিত। ইতিহাসের জনক বা পিতা কে?- বাংলাদেশ পল্লী বিদ্যুতায়ন বাের্ড -এর সহকারী পরিচালক (প্রশাসন); ১৬ / প্রাক প্রাথমিক সহকারী শিক্ষক : ১৫/ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (বি ইউনিট) : ১৩-১৪/ চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় (খ ইউনিট) : ০৫-০৬/ গণযােগাযােগ অধিদপ্তরে সহকারী তথ্য অফিসার : ০৫/ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (খ ইউনিট) : ০৩-০৪] | ক যুসিডাইজিস
৮ হেরােডােটাস @ এরিস্টটল
ঘ টয়েনবি
বিজ্ঞান গ্রিক বিজ্ঞানীরা পৃথিবীর মানচিত্র অঙ্কন করেছিলেন। তারাই প্রথম প্রমাণ করেছিলেন যে পৃথিবী একটি গ্রহ এবং তা নিজ কক্ষপথে আবর্তিত হয়। বিখ্যাত গ্রিক গণিতবিদ পিথাগােরাস’ খ্রিস্টপূর্ব ষষ্ঠ শতকে জন্ম নিয়েছিলেন। খ্রিস্টপূর্ব পঞ্চম শতকে জন্ম নেন বিজ্ঞানী এনাক্সাগােরাস’। চিকিৎসাবিজ্ঞানী। হিপােক্রেটিস যথেষ্ট খ্যাতি অর্জন করেছিলেন।
খেলাধুলা। খ্রিস্টপূর্ব ৭৭৬ অব্দে গ্রিসে অলিম্পিক প্রতিযােগিতার জন্ম হয়। প্রতি চার বছর অন্তর এ প্রতিযােগিতা অনুষ্ঠিত হতাে। বিভিন্ন নগর রাষ্ট্রের খেলােয়াড়রা অংশ নিত। এ খেলার সূত্র ধরে পারস্পরিক শত্রুতার বদলে গ্রিকদের মধ্যে সাংস্কৃতিক ঐক্য গড়ে উঠে।
স্থাপত্য ও ভাস্কর্য কয়েকজন খ্যাতিমান গ্রিক ভাস্কর হচ্ছেন মাইনর, ফিদিয়াস এবং প্রাকসিটেলেস। প্রাচীন গ্রিলে। মৃৎপাত্রের গায়ে চিত্রকর্ম অঙ্কন করা হতাে।।
অলিম্পিক প্রতিযােগিতার জন্য কোন দেশে? [Sonali, Jar ক ইংল্যান্ড।
খ) ইতালি। ল গ্রিস
স্পেন প্রথমে অলিম্পিক খেলা কোথায় শুরু হয়েছিল? ক) রােমে
• গ্রিসে @ মিশরে
ঘ) ইতালিতে


গ্রিসে কখন প্রথম অলিম্পিক খেলা শুরু হয়? ইউনিট) : ০৩-০৪] ক) খ্রিস্টপূর্ব ৪০০০
খ্রিস্টপূর্ব ৭৬৬ খ্রিস্টপূর্ব ৭৭৬
খ্রিস্টপূর্ব ৩৯৯ প্রাচীন গ্রিসে চিত্রকর্ম অঙ্কন করা হতাে- ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (চ-ইউনিট) : ১৪-১৫] ক) প্যাপিরাসে।
খ মৃৎপাত্রের গায়ে ঐ কাঠের ওপর
ঘকাপড়ের ওপর
রােমান সভ্যতা (The Roman Civilization) প্রাচীনকালের অধিকাংশ সভ্যতা নদীমাতৃক হলেও রােমান সভ্যতা নদীমাতৃক ছিল না। ইতালির পশ্চিমাংশে অবস্থিত ছােট্ট শহর রােমকে কেন্দ্র করে রােমান সভ্যতার বিকাশ ঘটেছিল। ইন্দোইউরােপীয় গােষ্ঠীর একদল মানুষ ২০০০ খ্রিস্টপূর্বাব্দে উত্তর ইতালিতে বসতি গড়ে তােলে। এদের
বলা হত ল্যাটিন। ক্রমে এদের ভাষা ‘ল্যাটিন ভাষা’ নামে পরিচিতি পায়। ল্যাটিন রাজা রােমিউলাস একটি নগরীর পত্তন করেন। রাজার নামেই নগরীর নাম হয় রােম। দাসশ্রমের উপর নির্ভরশীল ছিল রােমের অর্থনীতি। দাসদের উপর অমানবিক অত্যাচার করা হত। অবশেষে স্পার্টাকাস নামক একজন দাসের নেতৃত্বে সংঘটিত হয় দাস বিদ্রোহ। বিদ্রোহী দাসরা দুই বছর দক্ষিণ ইতালিতে টিকে ছিল । স্পার্টাকাস ৭১ খ্রিস্টপূর্বাব্দে নিহত হলে দাস বিদ্রোহের অবসান হয়। রােমের সবচেয়ে খ্যাতিমান সম্রাট ছিলেন জুলিয়াস সিজার। তিনি ৪৬ খ্রিস্টপূর্বাব্দে রােমের সম্রাট হন। তাঁর বিখ্যাত উক্তি ‘এলাম, দেখলাম, জয় । করলাম। কিন্তু রােমে ।
ক্ষমতার দ্বন্দ্ব ও ষড়যন্ত্র প্রবল জুলিয়াস সিজার
হতে থাকলে ব্লুটাস ও ক্যাসিয়াস নামের দুই অভিজাতের হাতে জুলিয়াস সিজার নিহত হন। এবার গৃহযুদ্ধে জড়িয়ে পড়ে রােম। অবশেষে তিন নেতা একযােগে ক্ষমতায় । আসেন। এরা হলেন অক্টেভিয়াস সিজার, মার্ক এন্টনি এবং লেপিডাস।। এ তিনজনের একত্র শাসনকে ইতিহাসে ত্রয়ী শাসন বলা হয়। ত্রয়ী ta” শাসন বেশিদিন টেকেনি। অক্টেভিয়াস সিজার প্রথমে পরাজিত করেন লেপিডাসকে। এন্টনি মিশাবের রাজকন্যা ক্লিওপেট্রা-কে বিয়ে করে শক্তি সঞ্চয় করেছিলেন। ক্লিওপেট্রাকে ইতিহাসে Serpent of the Nile (নীল নদের সর্প) নামে পরিচিত। কিন্তু তিনিও পরাজিত হন অক্টেভিয়াস সিজারের হাতে। এভাবে রােমান সম্রাজ্যের একচ্ছত্র অধিপতি হয়ে অক্টেভিয়াস সিজার অগাস্টাস সিজার উপাধি অহণ করেন। অগাস্টাস সিজারের রাজত্বকালের সবচেয়ে উল্লেখযােগ্য ঘটনা হল খ্রিস্টধর্মের প্রবর্তক
অস্টের জন্ম। অগাস্টাস সিজার ১৪ সালে মারা যান। ৪৭৬ খ্রিস্টাব্দে রােমান সম্রাজ্যের পতন হৃণ। শেষ রােমান সম্রাট ছিলেন রােমিউলাস অগাস্টুলাস।।

নয়নের পিছনে তিন
ঞ্জিলোর মহাকাব্য ‘ইনিড়’
দর্শন। রােমের সবচেয়ে জনপ্রিয় দার্শনিক মতবাদের নাম ‘স্টোয়িকবাদ। এ দর্শনের উন্নয়নের পিচ ব্যক্তির বিশেষ ভূমিকা ছিল। এরা ছিলেন ধনী রােমান সেনেকা’, অন্যজন এক দাস এপিক এবং শেষ ব্যক্তি হলেন রােমান সম্রাট ‘মার্কাস অরেলিয়াস। সাহিত্য এ যুগের কবি হােরাস ও ভার্জিল যথেষ্ট খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। ভার্জিলের মহাকাৰ। বহুভাষায় অনূদিত হয়েছে। ওভিদ ও লিভি এ যুগের অন্য দুই খ্যাতিমান কবি। বিখ্যাত ইতিহা ট্যাসিটাস এ যুগে রােমে জন্ম নিয়েছিলেন। স্থাপত্য ও ভাস্কর্য রােমের একটি বিখ্যাত স্থাপত্য নিদর্শন হচ্ছে সম্রাট হাড্রিয়ানের তৈরি ধর্মমন্দির প্যানথিয়ন। কলােচিত নামে রােমে তৎকালীন বিশ্বের সবচেয়ে বড় নাট্যশালা তৈরি হয়েছিল। এখানে একসাথে ৫৬০০ দর্শক বসতে পারত। আইন রােমানদের সবচেয়ে বড় কৃতিত্ব আইনের ক্ষেত্রে। বার্জেন্টাইন সম্রাট জাস্টিনিয়ান সর্বপ্রথম সম্প রােমান আইন সংকলিত করেন। আইনের ক্ষেত্রে আধুনিক বিশ্ব সম্পূর্ণভাবে রােমান আইনের উপর নির্ভরশীল।
কোনটি নদীমাতৃক সভ্যতা নয়? শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় (খ ইউনিট) : ০৩-০৪]। ক) সিন্ধু।
খ) ব্যবিলনীয়। গ রােমান ।
(ঘ) চৈনিক। ‘জুলিয়াস সিজার’ কেন বিখ্যাত? [৩২তম বিসিএস/ ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ঙ ইউনিট) : ০৩-০৪] ক রােমান সম্রাট হিসেবে। | খ) বর্ণবাদ বিরােধী হিসেবে। গ) বৃটেনের রাজা হিসেবে ঘ) আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হিসেবে। Julius Caesar was the ruler of Rome about…….. years ago./ জুলিয়াস সিজার ……….. বছর পূর্বে রােমের শাসক ছিলেন। a) 1000
b) 1500 © 2000
@ 3000 ‘এলাম, দেখলাম, জয় করলাম’ কথাটি বলেছেন– আমদানি-র এন্ড ইমিগ্রেশন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক : ০০] ক আলেকজান্ডার
জুলিয়াস সিজার গু নেপােলিয়ন
ঘ) হিটলার ক্লিওপেট্রা ছিলেন- রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় (রাষ্ট্রবিজ্ঞান) : ০৪-০৫। পররাষ্ট্র মন্ত্রণ বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক : ৯৪] কি মিশরের রানী
* গ্রিসের রানী ও তুরস্কের রানী
ঘ) রােমের রানী
৪.।

ঐ প্রাচীন গ্রিস ও রােমে গ) আমেরিকায়।
ঘ) জার্মানিতে
( ইনকা সভ্যতা (The Inca Civilization)। পরুর দক্ষিণাংশে শক্তিশালী ইনকা সভ্যতার বিকাশ ঘটেছিল। ইনকা সভ্যতার ব্যাপ্তিকাল ছিল ১৪৩৮-১৫৩২ খ্রিস্টাব্দ পর্যন্ত। ইনকা সভ্যতার শক্তিশালী সম্রাটগণ তাদের বাসস্থান হিসাবে মাচু-পিছু নগরী গড়ে তুলেছিলেন। | মায়া সভ্যতার নিদর্শন পাওয়া যায় মেক্সিকোর দক্ষিণে এবং উত্তর মধ্য আমেরিকাতে।
< ইনকা সভ্যতার ব্যাপ্তিকাল ছিল- (থানা সহকারী শিক্ষা অফিসার : ৯৯]। ক) ১৪৩৫ থেকে ১৫৩৫ খ্রিস্টাব্দ খ) ১৫৪৬ থেকে ১৫৩৯ খ্রিস্টাব্দ। ঐ ১৪৩৮ থেকে ১৫৩৩ খ্রিস্টাব্দ ঘ ১৪৩০ থেকে ১৫৩০ খ্রিস্টাব্দ ইনকা সভ্যতার ধ্বংসাবশেষ পাওয়া গেছে- জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় (খ ইউনিট) : ০৭-০৮] ক) ব্রাজিলে
খ) ভেনিজুয়েলায় প পেরুতে
ঘ) বলিভিয়ায় The world heritage Machu Picchu is located in – fare a fogy atyro কোথায় অবস্থিত? [বেগম রােকেয়া বিশ্ববিদ্যালয় (এফ- ইউনিট) । @ Botswana
O Mongolia © Kampuchea
Peru © Chili মায়া সভ্যতার নিদর্শন পাওয়া যায় কোথায়? [জাই ক) জাপান
খে মেক্সিকো গ) জার্মানি
(ঘ) ইতালি
৪.

আদিবাসী গােষ্ঠী (Indigenous/ Aboriginal peoples)
Note
………. এর অধিবাসী।
Indigenous People Inhabitants of …. আদিবাসী সম্প্রদায়। Zulu (জুল) | দক্ষিণ আফ্রিকা Pygmy (পিগমি) মধ্য আফ্রিকা
পৃথিবীর সবচেয়ে খর্বকায় জাতি। Maasi (মাসাই)। কেনিয়া, তাঞ্জানিয়া। Maori (মাওরি) নিউজিল্যান্ড। Kurdi (কুর্দি) | ইরান, ইরাক, সিরিয়া, তুরস্ক। | Afridi (আফ্রিদি)। পাকিস্তান । Gurkha (eft)
নেপাল। Toda (টোডা)।
সমাজে বহুস্বামীভিত্তিক পরিবার দেখা যায় Naga (নাগা)। ভারত
সাধারণভাবে দ্রাবিড়িয়ান Dravidian (দ্রাবিড়)
ভাষাসমূহে (তেলেগু, কর্ণাটক, মালায়ালাম প্রভৃতি) কথা বলে
এমন জনগােষ্ঠীকে দ্রাবিড় বলে । Bedya (বেদে) । ভারতীয় উপমহাদেশ ।
যাযাবর জাতি বিশেষ।
এস্কিমােরা শিকারের জন্য কুকুর চালিত সার্বিয়া (রাশিয়া), | যে গাড়ি ব্যবহার করে তার নাম সেজ আলাস্কা (যুক্তরাষ্ট্র), (Sledge)। স্লেজ গাড়ি চালাতে কানাডা, গ্রীনল্যান্ড। Siberian Huskies 7 Alaskan
talamutes কুকুর ব্যবহৃত হয়। Eskim0$ (এস্কিমাে) । Red Indian (রেড ইন্ডিয়ান) আমেরিকা
আমেরিকার আদি অধিবাসী। হুটু ও টুটসি রুয়ান্ডার ক্ষমতার লড়াইয়ে লিপ্ত দুটি প্রধান উপজাতি।
১.
The “Gurkhas’ are the original inhabitants of -/ eft at PACH f rit? [PubaliBank LtdJunior Officer:12/ICBSeniorOfficer:11/Sadharan Bima Corporation JuniorOfficer @ Bhutan
India v Nepal
@ Myanmar © None of these

Eskimos hunt using a dog-driven vehicle called-/ afecariat foretag জন্য ককর চালিত যে গাড়ি ব্যবহার করে তার নাম- [First Security Islami Bank Ltd. Probationary Officer: 09/ Mercantile Bank Ltd. Officer: 061 @ Cart
Sledge © Bus
@ Snow Cart @ None of these Red Indian lives in-/ রেড ইন্ডিয়ানরা বাস করে- [Pubali @ Red Islands
* America © India
@ Red Sea @ None of these নিউজিল্যান্ডের আদিবাসীদের কি বলা হয়? প্রাথমিক বিদ্যালয় প্রধান শিক্ষক ( ক) তাতারু
খে মাউরি গ) রেড ইন্ডিয়ান
ঘে কুর্দি মাওরী সম্প্রদায় কোন দেশের আদিবাসী? [ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (চ-ইউনিট) : ১২ : ১৩-১৪]] ক) অস্ট্রেলিয়া
(খ) নিকারাগুয়া। নিউজিল্যান্ড
ঘ) পেরু | ঙ পাপুয়া নিউগিনি কুর্দিদের বাস যে দেশে – প্রাথমিক বিদ্যালয় সহকারী শিক্ষক : ৯২)। ক) ইরানে
(খ) ইরাকে গ) তুরস্কে
ঘ) ওপরের সবগুলােতে ‘জুলু’ উপজাতি বাস করে – ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (খ ইউনিট) : ০৬-০৭] ক লাতিন আমেরিকায়। প্রদক্ষিণ আফ্রিকায় গ) ভারতে।
(ঘ) ফ্রান্সে। রুয়ান্ডার ক্ষমতার লড়াইয়ে লিপ্ত দুটি প্রধান উপজাতির একটি হলাে টুটসি প্রতিপক্ষের নাম কী? [ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় (খ ইউনিট) : ৯৬-৯৭] ১ ও
গ) খেমাররুজ
(ঘ) তামিল দক্ষিণ ভারতের আদি অধিবাসীদের কি নামে অভিহিত করা হয়? – [সহকারী প ক) টোডা
# দ্রাবিড় গ) সুর
(ঘ) আফ্রিদি

আদি মানব (Ancient Human)। Java Man (জাভা মানব) ১৮৯১ সালে ইন্দোনেশিয়ার অন্তর্গত পূর্ব জাভার সােলাে নদীর তীরে প্রাগৈতিহাসিক মানুষের খুলি আবিষ্কৃত হয়। এই আদি মানবের নাম দেওয়া হয় জাভা মানব।
Heidelberg Man (হেইডেলবার্গ মানব)। ১৯০৭ সালে জার্মানির হেইডেলবার্গ বিশ্ববিদ্যালয়ের জনৈক অধ্যাপক প্রাগৈতিহাসিক মানুষের চোয়ালের হাড় আবিষ্কার করেন এবং নামকরণ করেন হেইডেলবার্গ মানব।
Peking Man পিকিং মানব)। ১৯২৯ সালে পিকিংয়ের (আধুনিক বেইজিং) নিকট পাওয়া যায় প্রাগৈতিহাসিক মানুষের মাথার এ আদি মানুষের নাম দেওয়া হয় “পিকিং মানিব। Lucy (অস্ট্রালােপিতিসিন্স লসি)। ১৯৭৪ সালের ২৪ নভেম্বর ইথিওপিয়ায় ৩.২ মিলিয়ন বছরের পুরােনাে কংকাল আবিষ্কৃত হয়। কংকালটির নামকরণ করা হয় লুসি (Lucy)। এর স্পেসিস : Australopithecus afarensis। চিত্রে বিভিন্ন প্রকার মানবের প্রতিকৃতি।
জাভা মানবের মাথার খুলি
হেইডেলবার্গ মানবের চোয়ালের হাড়। পিকিং মানবের মাথার খুলি
জাভা মানব কোথায় পাওয়া যায়? কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (মানবিক) : ০৮-০৯]। ক ইন্দোনেশিয়ায়
(খ) জার্মানিতে গ) চীনে। হাইডেলবার্গ মানব কোথায় পাওয়া যায়? কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয় (বিবিএ) : ০৮-০৯] ক) ইতালিতে
খ জার্মানিতে গ) ভারতে
(ঘ) চীনে প্রায় সম্পূর্ণ অস্ট্রালােপিতিসিন্স লুসি’র কংকাল ১৯৭৪ সালে নিচের কোন দেশে আবি, হয়? মেডিকেল ; ০৯-১০]। ক) কেনিয়া
খ) ইরিত্রিয়া গ ইথিওপিয়া
ঘ) তানজানিয়া

MCQ Question & Solution

  1. Which of the following is the oldest civilization of the world? Or, বিশ্বের সবচেয়ে প্রাচীন সভ্যতা কোথায় গড়ে উঠেছিল?
    উত্তরঃ Mesopotamia (মেসােপটেমিয়া)
  2. বিশ্বের প্রাচীন সভ্যতার দেশ-
    উত্তরঃ মেসােপটেমিয়া
  3.  কোনটি সবচেয়ে প্রাচীন সভ্যতা?
    উত্তরঃ মিশরীয়
  4. কোন সভ্যতা সবচাইতে প্রাচীন-
    উত্তরঃ মেসােপটেমীয়
  5. The earliest civilization was flourished in- | প্রাচীনতম সভ্যতা বিকশিত হয়
    উত্তরঃ Sumeria 
  6. মেসােপটেমিয়া এলাকার বেশির ভাগ বর্তমান কোন দেশে?
    উত্তরঃ ইরাক
  7. সেচ নির্ভর প্রাচীন সভ্যতা কোনটি?
    উত্তরঃ মেসােপটেমীয়
  8. সুমেরীয় সভ্যতা কোথায় গড়ে উঠেছিল?
    উত্তরঃমেসােপটেমিয়ায়
  9. কোন সভ্যতায় প্রথম ‘চাকা’ এর ব্যবহার প্রচলন হয়?
    উত্তরঃসুমেরীয় 
  10. ইতিহাসের প্রথম লিখিত আইন প্রণেতা কে?
    উত্তরঃ হাম্বুরাবি
  11. পৃথিবীর কোথায় প্রথম লিখিত আইনের প্রচলন হয়?
    উত্তরঃব্যাবিলন
  12. কোন প্রাচীন সভ্যতায় ‘হাম্মুরাবির আইন প্রচলিত হয়েছিল?
    উত্তরঃমেসােপটেমীয়
  13. আইনুসংক্রান্ত হাম্বুরাবি কোড কোন সভ্যতার সময়ে প্রণীত হয়েছিল?
    উত্তরঃ ব্যাবিলনীয় সভ্যতা
  14. ব্যাবিলনের ঝুলন্ত উদ্যান কোন দেশে অবস্থিত? অথবা, ব্যাবিলন কোথায়?
    উত্তরঃ ইরাক
  15. ব্যাবিলনের ঝুলন্ত উদ্যান কে গড়ে তুলেছিল?
    উত্তরঃ নেবুচাদ নেজার
  16. পৃথিবীর প্রাচীনতম মানচিত্র পাওয়া যায়
    উত্তরঃ ব্যবিলনের উত্তরের গাথুর শহরের ধ্বংসাবশেষে
  17. নিম্নের কোন সভ্যতায় প্রতিদিনকে ১২ জোড়া ঘণ্টায় বিভক্ত করা হয়?
    উত্তরঃ ক্যালডীয়
  18. কারা সপ্তাহের সাত দিনকে বিভক্ত করে?
    উত্তরঃক্যালডিয়রা
  19. আধুনিক তুরস্ক, সিরিয়া, ইরান, ইরাক ও কুয়েত- এই রাষ্ট্রগুলাে প্রচীন কোন সভ্যতার অংশ?
    উত্তরঃ মেসােপটেমিয়ান সভ্যতা
  20. Which one is the oldest civilization? / প্রাচীনতম সভ্যতা কোনটি?
    উত্তরঃ Egyptian (মিশরীয়)
  21. প্রাচীন মিশরীয় সভ্যতা কোন নদীর তীরে গড়ে উঠেছিল?
    উত্তরঃ নীল
  22. What is Hieroglyphics?/ হায়ারােগ্লিফিক কি?
    উত্তরঃ An ancient Egyptian writing style with pictures (প্রাচীন মিশরায় চিত্রভিত্তিক লিখন পদ্ধতি) 
  23. হায়রােগ্লিফিক হলাে
    উত্তরঃ একটি লিখন পদ্ধতির নাম
  24. পৃথিবীর সবচেয়ে পুরাতন কীর্তিস্তম্ভ কি?
    উত্তরঃ পিরামিড
  25. স্ফিংকস কোথায় অবস্থিত?
    উত্তরঃ মিশর
  26. প্রাচীন মিশরীয়রা কোন বর্ণ দিয়ে তাদের ভাব প্রকাশ করতে?
    উত্তরঃ হায়ারােগ্লিফিক
  27. ‘প্যাপিরাস’ কোন সংস্কৃতির সাথে সম্পর্কিত?
    উত্তরঃ মিশরীয়
  28. ১২ মাসে ১ বছর,৩০ দিনে১ মাস এই গণনারীতিকাদেরদ্বারাসূচিত?
    উত্তরঃমিশরীয়
  29. প্রথম একশ্বরবাদী ধর্ম কোনটি?
    উত্তরঃ প্রাচীন মিশরীয়
  30. প্রাচীন মিশরের ফারাও রাজা তুতেনখামেনের সমাধি আবিস্কৃত হয় ইংরেজি সালে
    উত্তরঃ ১৯২২ সালে 
  31. সিন্ধু সভ্যতার প্রতিষ্ঠাতা
    উত্তরঃ দ্রাবিড়গণ
  32. Moenzo-daro & Harappa civilization is nearly (মহেঞ্জোদারো ও হরপ্পা সভ্যতা প্রায়)
    উত্তরঃThree and half thousand years old (সাড়ে তিন হাজার বছরের প্রাচীন)
  33. সিন্ধু সভ্যতা আবিষ্কারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে ..
    উত্তরঃ রােখালদাস বন্দ্যোপাধ্যায়
  34. প্রাচীন কোন সভ্য দেশের অধিবাসীদের সাথে সিন্ধু উপত্যকার অধিবাসীদের সাদৃশ্য লক্ষ্য করা যায়?
    উত্তরঃ ব্যাবিলন
  35. সিন্ধু সভ্যতা কোন যুগের সভ্যতা?
    উত্তরঃ তাম্র যুগের
  36. সিন্ধু সভ্যতার অধিবাসীরা কোনটির ব্যবহার জানতাে না?
    উত্তরঃ লােহার অস্ত্র
  37. কত খ্রিস্টপূর্বাব্দে সিন্ধু সভ্যতার পতন হয়?
    উত্তরঃ ২৭৫০
  38. সভ্যতার ইতিহাসে ফিনিশীয়দের সবচেয়ে বড় অবদান কি?
    উত্তরঃ বর্ণমালা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *